তামাক নিয়ন্ত্রণে একটি অভিন্ন গাইডলাইন তৈরি করা হবে-সিদ্ধান্ত স্থানীয় সরকার বিভাগের

স্থানীয় সরকার বিভাগ তার আওতাধীন সকল সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের জন্য তামাক নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক একটি অভিন্ন গাইডলাইন তৈরি করবে এবং সকলে সেটিই বাস্তবায়ন করবে বলে এমন সিদ্ধান্ত প্রদান করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ডা. জাফর আহমেদ খান। আজ বেলা ২.০০টায় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সভাকক্ষে “২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে স্থানীয় সরকার বিভাগ ও এর আওতাধিন সকল প্রতিষ্ঠানের করণীয়” শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ সিদ্ধান প্রদান করেন।

তিনি আরো বলেন সকল সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ তাদের মাসিক সমন্বয় সভার আলোচ্য সূচীতে তামাক নিয়ন্ত্রণ বিষয়টি অন্তর্ভূক্ত করবে। এছাড়া স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক সারাদেশে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের তামাক নিয়ন্ত্রন কার্যক্রম পরিচালনার ও মনিটরিং-এর জন্য একটি কমিটি গঠন করা হবে। স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রোকসানা কাদের-এর নেতৃত্বে এই কমিটি গঠিত হবে। এই কমিটি তামাক নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক গাইডলাইন তৈরি, বর্তমান স্থানীয় সরকার আইন ২০০৯ এর সংশোধন যেখানে তামাক নিয়ন্ত্রণ বিষয়টি অন্তর্ভূক্তসহ তামাক নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। সভার সভাপতি আরো বলেন যে তামাক নিয়ন্ত্রণে সকল সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ বাজেট বরাদ্দ করবে এবং পাশাপাশি এর ব্যয়ও নিশ্চিত করতে হবে।

সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সকল অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিবসহ এ বিভাগের অধিন সকল প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ সভায় অংশ গ্রহন করেন এবং নিজ নিজ মতামত প্রদান করেন। এছাড়াও বিভিন্ন তামাক বিরোধী সংগঠনসমূহের প্রতিনিধিরা সভায় উপস্থিত ছিলেন। আন্তর্জাতিক সংস্থার মধ্যে ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস্ ওয়াসিংটন ডিসি এর প্রোগ্রাম ও ফিনানসিয়াল কমপ্লায়েন্স অফিসার আয়শা আহমেদ, বাংলাদেশের প্রধান পরামর্শক মো: শরিফুল আলমসহ অন্যান্য প্রতিনিধি এবং দ্য ইউনিয়ন এর টেকনিক্যাল এডভাইজার সৈয়দ মাহবুবুল আলম সভায় উপস্থিত হয়ে মতামত প্রদান করেন।

সভার মূল বক্তব্য সচিত্র তথ্য চিত্র উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়কারী, যুগ্মসচিব মো: খায়রুল আলম সেখ। সভার শুরুতে বাংলাদেশে তামাক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনা প্রদান করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রোকসানা কাদের। সভার উদ্দেশ্য সম্পর্কে বলেন ইপসার তামাক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের টিম লিডার নাসিম বানু এবং সভাটি সঞ্চালনা করেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ইকবাল মাসুদ। সভাটি আয়োজনের সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে এসিডি, এইড ফাউন্ডেশন, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, ইপসা, ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস্, দ্য ইউনিয়ন এবং ব্লুমবার্গ ফিলানথ্রোপিস।

Please like and share us: